রাজ্যের বন সহায়ক পদের নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া আপাতত বন্ধ থাকবে।

বন সহায়ক পদের নিয়োগে জোর তোড়জোড় শুরু করেছিল রাজ্য। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জমা পড়ে হাজার হাজার প্রার্থীর আবেদন। রিপোর্টে দেখা যায়, কোথাও 60 টি পদের জন্য আবেদন এসেছে 30 হাজার! তো কোথাও আবেদন পেরিয়েছে  50 হাজার। এদিকে, বন সহায়কের নিয়োগ সংক্রান্ত মামলা আদালতে বিচারাধীন। এদিন বৃহস্পতিবার সেই মামলায় হাইকোর্টের নির্দেশ, রাজ্যের বন সহায়ক পদের নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া আপাতত বন্ধ থাকবে।

রাজ্যের বন সহায়ক পদের নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া আপাতত বন্ধ থাকবে।
হাইকোর্টের বিচারপতি ভিএম ভেলুমণি এবং বিচারপতি রাই চট্টোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ এদিন বন সহায়ক পদের নিয়োগ সংক্রান্ত রাজ্যের বিজ্ঞপ্তিতে 6 জুলাই পর্যন্ত অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশের নির্দেশ দিয়েছেন। অর্থাৎ নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনই শুরু করতে পারছে না রাজ্য সরকার। পাশাপাশি, হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের তরফে দুই হাজার কর্মীর পুরনো প্যানেল বাতিলের যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, তাতেও স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, 2020 সালের বন সহায়ক পদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ত্রুটি রয়েছে, এহেন দাবি তুলে হাইকোর্টে মামলা করেন 50 জন প্রার্থী। মামলায় হাইকোর্ট নির্দেশ দেয়, বন সহায়ক নিয়োগের পুরনো প্যানেল বাতিল করতে হবে ও শূন্যপদে নতুন নিয়োগ শুরু করতে হবে। উচ্চ আদালতের নির্দেশ মেনে নিয়োগ প্রক্রিয়া আরম্ভ করে রাজ্য। এদিকে, হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হন পুরনো প্যানেলে থাকা প্রার্থীদের একাংশ।

এবার পুরোনো প্যানেল অনুযায়ী নিয়োগ হবে? নাকি নতুন নিয়োগের ইন্টারভিউ হয়ে নিয়োগ হবে তা সময় বলবে। উত্তর পেতে আমাদের চোখ থাকবে হাইকোর্টের দিকে, আর আপনি চোখ রাখুন AsBangla.com -এর দিকে।

Leave a Comment